| |

কোভিড লকডাউন ভেঙ্গে ডাউনিং স্ট্রিটে মদের পার্টি নিয়ে রিপোর্ট

প্রকাশঃ মে ২৬, ২০২২ | ২:০৯ অপরাহ্ণ

ব্রিটেনে ২০২০ ও ২১ সালে কোভিড লকডাউনের সময় বিধিনিষেধ ভেঙে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের অফিসে পার্টি করার ঘটনা নিয়ে এক তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশের পর তার ওপর পদত্যাগের জন্য প্রচন্ড চাপ সৃষ্টি হয়েছে।

দশ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাড়িতে কীভাবে রাতভর ড্রিঙ্কিং পার্টি হয়েছে, মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপান করে কীভাবে অনেকে সেসব পার্টিতে বেসামাল আচরণ করেছেন – তার বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছেন সিনিয়র সরকারি আমলা সু গ্রে, যিনি এই তদন্ত রিপোর্টটি তৈরি করেছেন।

মিজ গ্রে তার রিপোর্টে মন্তব্য করেছেন সরকারের একদম শীর্ষ পর্যায়ে এমন আচরণ অনেক মানুষকে ক্রুদ্ধ ও মর্মাহত করবে। পার্লামেন্টে বিরোধী লেবার পার্টির ডেপুটি লিডার এ্যাঞ্জেলা রেইনার মন্তব্য করেছেন, প্রধানমন্ত্রী জনসনের অফিস ডাউনিং স্ট্রিটের মাথায় পচন ধরেছে।

এসব পার্টির বেশির ভাগই ছিল ডাউনিং স্ট্রিটের কোন কর্মকর্তার বিদায় উপলক্ষে বা কাজের শেষে একসঙ্গে বসে গলা ভেজানোর জন্য – আর একটি ছিল প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালনের পার্টি ।

যখন এসব পার্টি হচ্ছিল – তখন সারা ব্রিটেন জুড়ে লকডাউন চলছে, বা জনসমাগমের ওপর কঠোর বিধিনিষেধ জারি আছে। সেসময় ব্রিটেনে এমন ঘটনাও ঘটেছে যে বহু লোক তাদের মরণাপন্ন আত্মীয়স্বজনকে দেখার সুযোগও পান নি। সেই অবস্থার মধ্যেই ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টি চলার এসব খবর বেরুলে মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ সৃষ্টি হয়।

ওই পার্টিতে যোগ দেয়া লোকজন বিবিসির কাছে বলেছেন যে এসব পার্টিতে ৩০ জনেরও বেশি লোক ছিল। কোন সামাজিক দূরত্ব রাখা হয়নি, এত লোক ছিল যে একজনকে আরেকজনের কোলে বসতে হয়েছে এমনও ঘটেছে ।

পার্টিতে বিপুল পরিমাণ মদ পান করা হয়, আবর্জনা ফেলে অফিস নোংরা করা হয়। এত রাত পর্যন্ত পার্টি চলে যে অনেককে ডাউনিং স্ট্রিটেই রাত কাটাতে হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ব্রেকিংঃ